শুক্রবার, ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
আজ শুক্রবার | ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
Home » Slider »

নবীনগরে ব্যারিস্টার জাকির আহাম্মদ কলেজের নামে খাস পুকুর বরাদ্ধ কেন অব্যাহত রাখা হবেনা জানতে চেয়ে হাইকোর্ট রুল জারি করেন

মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১ | ৬:১৩ অপরাহ্ণ | 67Views

নবীনগরে ব্যারিস্টার জাকির আহাম্মদ কলেজের নামে খাস পুকুর বরাদ্ধ কেন অব্যাহত রাখা হবেনা জানতে চেয়ে হাইকোর্ট রুল জারি করেন

এমডি বাবুল ভূঁইয়া: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরের লাউর ফতেহপুর ব্যারিস্টার জাকির আহাম্মদ কলেজের নামে খাস পুকুর বরাদ্ধ অব্যাহত রাখতে মহামান্য হাইকোর্ট থেকে রুল জারি করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১৫/০৬/২০২১) হাইকোটের মাননীয় বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহীম ও মাননীয় বিচারপতি এমডি মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত দ্বৈত বেঞ্চ লাউর ফতেহপুর ব্যারিস্টার জাকির আহাম্মদ কলেজের নামে খাস পুকুর বরাদ্ধ কেন অব্যাহত রাখা হবেনা মর্মে জানতে চেয়ে রুল জারি করেন।

জানা যায়, ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে লাউর ফতেহপুর ব্যারিস্টার জাকির আহাম্মদ কলেজের সার্বিক উন্নয়নের জন্য কর্তৃপক্ষ লাউর ফতেহপুর গ্রামের কবরস্থানের পূর্বপাশে অবস্থিত খাস পুকুরটি বরাদ্ধ দেন।এ বছর উক্ত কলেজের নামে বরাদ্ধকৃত খাস পুকুরটি উপজেলা কর্তৃপক্ষ ঢাকায় বসবাসরত জনৈক এক ব্যক্তির নামে বরাদ্দ দিয়ে দেন।
কলেজ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি মীমাংসার জন্য মহামান্য হাইকোটের দ্বারস্থ হলে বিষয়টি যাচাই-বাছাই করে আজ দুপুরে মহামান্য হাইকোর্ট জনৈক ব্যক্তির নামে বরাদ্দকৃত আদেশটি স্থগিত করে লাউর ফতেহপুর ব্যারিস্টার জাকির আহাম্মদ কলেজের নামে খাস পুকুরটির বরাদ্ধ কেন অব্যাহত রাখা হবেনা মর্মে জানতে চেয়ে রুল জারি করেন।

এ বিষয়ে কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ব্যারিস্টার জাকির আহাম্মদ আমাদের প্রতিনিধিকে জানান মহামান্য হাইকোর্টের এ রায় সত্য-ন্যায় ও জনগনের অধিকার প্রতিষ্ঠার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

তিনি বলেন, আমি বাণিজ্য করার জন্য বা রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য এ কলেজটি প্রতিষ্ঠা করিনি। এলাকাবাসীর কল্যাণে এবং শিক্ষা-সমৃদ্ধ,আলোকিত নবীনগর গঠনের জন্যই কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেছি। যারা এ কলেজের অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত তাদের জন্য এ রায় একটি সমুচিত জবাব বলেও জানান তিনি। কলেজটিকে এগিয়ে নিতে তিনি সকলের দোয়া ও সহযোগিতা চান।

কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ আবদুল কাইয়ূম বলেন মহামান্য হাইকোর্টের রায়ে আমরা সন্তুষ্ট।তিনি মাননীয় বিচারপতি মহোদয়কে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

-Advertisement-
সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

-Advertisement-
-Advertisement-