বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আজ বুধবার | ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শূন্য থেকে কোটিপতি বনে যাওয়া সোহাগ রনির অন্ধকার জগতের গল্প

রবিবার, ০২ এপ্রিল ২০২৩ | ২:৩৬ অপরাহ্ণ

শূন্য থেকে কোটিপতি বনে যাওয়া সোহাগ রনির অন্ধকার জগতের গল্প

সোনারগাঁ প্রতিনিধিঃ নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁয়ে ফুটপাতের দোকানদার হাজী সোহাগ রনি । রাতারাতি আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়েছে তার। শুধু দোকানদার নয়, বরং ছাত্রলীগ পরিচয়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন পুরো নারায়ণগঞ্জ জেলা।

সাবেক এই ছাত্রলীগের সোহাগ রনি রাজনৈতিক ইসু করে বছর ঘুরতে না ঘুরতেই এখন তিনি হাজার কোটি টাকার মালিক। বিদেশে ব্যাবসা বাণিজ্য সহ রয়েছে সেকেন্ড হোম। শুধু তাই নয় সোনারগাঁ সহ বিভিন্ন জায়গায় বহুতল বাড়ি, একাধিক জমি, সবকিছু হয়েছেন রাতারাতি, করেছেন বিয়ে, তাও আবার বিএনপি সোনারগাঁ পৌরসভা সহ-সভাপতি সালাউদ্দিন এর ভাই আলাউদ্দিন এর মেয়ে । তার ছেলে হারুন উর রশিদ মিঠু যুগ্ম আহবায়ক জেলা ছাত্রদল নারায়ণগঞ্জ।

হাজী সাহেবের বেড়ে ওঠা নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে ফুলবাড়ীয়া গ্রামে।ছোটবেলায় ছিল উশৃংখল চলা ফেরা। মারামারি ভাঙচুর সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ছিল নিত্য দিনের সঙ্গী। পরে রাজনৈতিক ইসু করে শুরু করে জায়গা জমির দালালি। ধিরে ধিরে হয়ে উঠে ভূমি খেকো সোহাগ। জোর পূর্বক জমি দখল, নীরিহ মানুষের ফসলি জমি ভরাট করা সহ স্থানীয় কোম্পানির পক্ষ হয়ে শুরু করে বেপরোয়া জমি দখল। প্রতিবাদ করলেই মামলা হামলার ভয় দেখিয়ে মুখ বন্ধ করে দিত। এভাবে ধীরে ধীরে হয় উঠে ভয়ংকর সোহাগ রনি। কিন্তু গত কয়েক বছর হলো এই কাজ বাদ দিয়ে রীতিমতো কোটিপতি তিনি।

সোনারগাঁ মোগরাপাড়া ইউনিয়নে আঁট তলা বিশিষ্ট বাড়ির মালিক কয়েকটির । রয়েছে কয়েকটি প্লটও তার। নারায়ণগঞ্জ রুপায়ন আবাসিক এলাকায় রয়েছে ডুপ্লেক্স বাড়ি। তার বাজার মূল্য চার কোটি ৫০ লাখ টাকা। নারায়ণগঞ্জ এন এইচ টাওয়ারে ১৪ তলায় রয়েছে আলিশান ফ্লাট। যার মূল্য এক কোটি ৫০ লক্ষ টাকা। এ ছাড়াও নতুন বহুতল ভবন তৈরির কাজ শুরু করেছেন এরই মধ্যে। এখানেই শেষ নয়। এলাকার বিভিন্ন গ্রামে কিছুদিন আগে বেশ কয়েকটি জমি কিনেছেন সোহাগ। তাছাড়া বিভিন্ন কোম্পানি, ফেক্ট্রি, বালুর ট্রাক, বালুর ড্রেজার, কোম্পানির নামে নিজস্ব পরিবহন সহ ঢাকায় আলিশান বাড়ি, ফ্লাট। রয়েছে নিজে ব্যবহার করার একাধিক কোটি টাকার আলিশান গাড়ি। মধ্যপ্রাচ্যে ৮ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। কি করে এত সম্পদের মালিক প্রশ্ন জমেছে সাধারণ মানুষের।

হঠাৎ শূন্য থেকে কোটিপতি বনে যাওয়া সোহাগের কি শুধুই জমি বেচাকেনার ব্যাবসা নাকি আলাদিনের চেরাগ পেলেন, যার ছোঁয়ায় গড়েছেন কোটি কোটি টাকার সম্পদ? অভিযোগ আছে, ছাত্র রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে মাদক ব্যবসায় জড়ান তিনি। এলাকার মানুষকে নানাভাবে ফাঁদে ফেলে চাঁদা দাবিসহ হয়রানির অভিযোগও রয়েছে সোহাগের বিরুদ্ধে।

তার রাজনৈতির পরিচয়ের বিষয়ে জানতে চাইলে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের নেত্রীবৃন্ধ জানান, রাজনৈতিক পরিচয়ে মাদকসহ সমাজের নানা কার্যকলাপে জড়ান এই ব্যক্তি। এ ব্যাপারে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলেই তিনি বলেন, আমি ওমুকের আন্ডারে আছি, ওমুকের ছত্রছায়ায় আছি , আমি নারায়ণগঞ্জের এক প্রভাবশালী পরিবারের ও নারায়ণগঞ্জের প্রভাবশালী নেতার ছেলের বন্ধু।

একই কথা বলেন, মোগরাপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু ও। তিনি বলেন, মাদকসহ আরও নানা কাজে জড়িত সোহাগ। তবে রাজনৈতিক কোনো ব্যক্তিত্বেরই প্রশ্রয় পেয়েছে সে।

শুধু তাই না, অস্ত্র ব্যবসায়ী ও কিশোর গ্যাং লিডারের সাথে তার গভীর সখ্যতাও আছে। নিজেও গড়ে তুলেছেন কিশোর গ্যাং। তার বিরুদ্ধে অভিযোগের যেনো শেষ নেই। সোহাগ যে ছাত্রলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে এলাকায় অধিপত্য বিস্তার করেন সেটিও ভুয়া।

তবে ছাত্রলীগ নেতা নন বলে বিষয়টি নিজেই স্বীকার করেন সোহাগ। বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক কমিটির সহ-সভাপতি ছিলেন তিনি। বর্তমানে কোনো কমিটিতে তার পোস্ট ছিল না সে কথাও স্পষ্ট জানিয়ে দেন সোহাগ।

কিছু দিন ধরে একটি অডিও রেকর্ডিং ফাঁস হয়ে যায়, যেখানে সোহাগ নিজেই আরমান হত্যার কথা স্বীকার করতে শোনা যায়। সে শুধু ভূমি খেকো নন একজন সিরিয়াল কিলার ও বটে। সোনারগাঁওয়ে চাঞ্চল কর আরমান হত্যার প্রধান আসামি ও রায়হান হত্যার প্রধান আসামি ও বটে। মোটা অংকের টাকার কন্টাকে মানুষ হত্যা করাও তার কাজ ছিল।

এ ছাড়াও সেই অডিও রেকর্ডিং তাঁর মুখ থেকে শোনা যায়, তার পৈতৃক সম্পত্তি খুবি নগন্য । তাঁর বাবার আঁট দশ শতাংশ জমি ছাড়া কিছুই ছিল না। জায়গা জমি দখল করে তিনি আজ আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ।

এ বিষয়ে সোনারগাঁ থানার ওসি তদন্ত বলেন, সোহাগ রনির বিরুদ্ধে সব অভিযোগই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মাদক ব্যবসা কিংবা কিশোর গ্যাংয়ের সাথে জড়িত থাকলে অবশ্যই আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। এরই মধ্যে অনেক মাদক ব্যবসায়ীকেই আমরা গ্রেফতার করেছি।দ




সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন