বৃহস্পতিবার, ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
আজ বৃহস্পতিবার | ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
Home » Slider »

চিটাগাংরোড তরমুজে আগুন, সংঘর্ষের আশঙ্কা আইনগত ব্যবস্থার আশ্বাস ডিসি’র

বুধবার, ২৮ এপ্রিল ২০২১ | ৫:২২ অপরাহ্ণ | 9Views

চিটাগাংরোড তরমুজে আগুন, সংঘর্ষের আশঙ্কা আইনগত ব্যবস্থার আশ্বাস ডিসি’র

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জ আহসান উল্লাহ সুপার মার্কেট ও নেকবরআলী এবং কাসসাফ সুপার মার্কেট এর মোড় ফলপট্টিতে তরমুজ বিক্রি হচ্ছে কেজিতে আর দাম হাকানো হচ্ছে প্রতি কেজি তরমুজ ৭০ থেকে ৮০ টাকা করে।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক চিটাগাংরোড আদমজী ইপিজেড রোড সড়ক বন্ধ করে চিটাগাংরোডের তরমুজ ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে বিক্রি করছে তরমুজ। এতে করে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন ক্রেতাগন। ক্রেতারা অভিযোগ করে বলেন, চিটাগাংরোডের জনসাধারনের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে ফলের দোকান ও ফুটপাত বসিয়েছে ব্যবসা করছে। এখন এসব অসাধু তরমুজ ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট করে কেজিতে তরমুজ বিক্রি করছে। রাস্তা বন্ধ করে অসাধু ব্যবসায়ী এক হয়ে ক্রেতাদের সাথে খারাপ আচরন করছে ও দোকানপাট বসিয়ে ক্রেতাদের বিভ্রান্ত করার চেষ্ঠা করছে।

এ সময় ক্রেতা-বিক্রিতাদের মধ্যে চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এসব অসাধু ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানান ভুক্তভোগী ক্রেতাগন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, জামাল নামের এক তরমুজ ব্যবসায়ী ফুটওভার ব্রিজি এর নিচে তরমুজের কয়েকটি দোকান দিয়ে প্রতি কেজিতে ৭০ থেকে ৮০ টাকা ধরে বিক্রি করছে। কেজি কত জানতে চাইলে জামালের দোকানের ছেলে বলে তরমুজ ৭০ টাকা আর বড় তরমুজ ৮০ টাকা কেজি।

গনমাধ্যমকর্মীদের ক্যামরা দেখে তরমুজ কিছুক্ষনের জন্য কেজিতে বিক্রি বন্ধ করে।আর প্রতিটি তরমুজের দোকানে ডিজিটাল পাল্লা দেখা যায়। উক্ত বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসককে ফোন দিলে তিনি বলেন, কেজিতে তরমুজ বিক্রি করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তিনি ইউএনও কে বলবেন বলে সাংবাদিকদের জানান।
ইউএনও সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমি অবগত হয়েছি অতি দ্রæত এসব অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মশিউর রহমান বলেন, তরমুজ কেজিতে বিক্রি করা খুব দুঃখজনক। তবে মোবালই কোর্টের মাধ্যমে পুলিশ কঠোর ভূমিকা পালন করবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা।রাস্তা বন্ধ করে যারা দোকানপাট বসিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ সময় সিএনবির নির্বাহী প্রকৌশলী বলেন, জনসাধারনের চলাচলের রাস্তায় যারা ফুটপাত দিয়ে দখল করেছে অচিরেই তাদের বিষয়ে ট্রাফিক বিভাগ দেখবে।আর রাস্তায় বন্ধ করে যারা অবৈধ দোকানপাট বসিয়েছে তাদের উচ্ছেদ করা হবে ।

-Advertisement-
সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

-Advertisement-
-Advertisement-