বৃহস্পতিবার, ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
আজ বৃহস্পতিবার | ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
Home » Slider »

সোনারগাঁয়ে হেফাজত কর্মীদের নাশকতায় প্রধান আসামিসহ আটক আরও- ৪ 

সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১ | ১:২৯ অপরাহ্ণ | 0Views

সোনারগাঁয়ে হেফাজত কর্মীদের নাশকতায় প্রধান আসামিসহ আটক আরও- ৪ 

ফাহাদুল ইসলাম স্টাফ রিপোর্টারঃ-হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক এবং খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে তার দ্বিতীয় স্ত্রীসহ আটকের ঘটনায় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে রয়েল রিসোর্টে ভাংচুর ও মহাসড়কে নাশকতার মামলার প্রধান আসামিসহ দলটির চার নেতাকে আটক করেছে রেপিড একশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১১)

র‌্যাবের হাতে আটক হলেন,হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ সোনারগাঁ শাখার আমির ও মোগরাপাড়া চৌরাস্তা জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মহিউদ্দিন খাঁন ও উপজেলা খেলাফত মজলিশের সভাপতি সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সর জামে মসজিদের (নিয়োগ বিহীন) ইমাম মাওলানা ইকবাল হোসেন, উপজেলা হেফাজতে ইসলামের সেক্রেটারি শাহাজাহান শিবলী (৪৩) ও উপজেলা হেফাজতে ইসলামের সহসভাপতি মোয়াজ্জেমসহ (৪৯) ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১ সদস্যা। এই মামলার প্রধান আসামি ইকবাল হোসেন।সোমবার(১২ এপ্রিল) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ আদমজী ক্যাম্প র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল খন্দকার সাইফুল আলম, পিবিজিএম, পিজিএমএস প্রেস রিলিজের মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।গত রবিবার দুপুরে রাজধানীর জুরাইন এলাকার একটি মসজিদ থেকে মাওলানা মহিউদ্দিন খাঁন ও মাওলানা ইকবাল হোসেন ও তার দুই সহযোগীসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।তবে মহিউদ্দিন খাঁনের পরিবার গত রবিবার গনমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন। মাওলানা মহিউদ্দিন খাঁন, মাওলানা ইকবাল হোসেন ও হামছাদি মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা শাহজাহান শিবলী ঢাকার জুরাইন মসজিদে তাদের মামলার জামিন সংক্রান্ত বিষয়ে এক মাওলানার সঙ্গে কথা বলতে জুরাইন মসজিদে যান। এর কিছুক্ষন পর আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তাদের মসজিদটিকে ঘিরে ফেলে। বর্তমানে গ্রেফতারকৃতরা র‌্যাব-১১ এর হেফাজতে রয়েছেন।উল্লেখ: গত ৩ এপ্রিল সোনারগাঁ রয়েল রিসোর্টে দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদেন হাতে অবরুদ্ধ হোন হেফাজত ইসলামের মহাসচিব মামুনুল হক। সেই ঘটনায় মামুনুল হকের সমর্থকরা রয়েল রিসোর্টে ভেতরে ঢুকে পুলিশের উপর হামলা, পুলিশের গাড়ি ও রয়েল রিসোর্ট ব্যাপক ভাংচুর চালিয়ে তাকে ছিনিয়ে নিয়ে আসে। এরপর তারা আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের বাড়ীঘর, আওয়ামীলীগের পার্টি অফিস ভাংচুর ও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে টায়ার জ্বালিয়ে অবরুদ্ধ করে গাড়ি ভাংচুর করে। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় ৬টি মামলা দায়ের করা হয়।

-Advertisement-
সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

-Advertisement-
-Advertisement-