বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আজ বুধবার | ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বস্তুনিষ্ঠ সংবাদই সাংবাদিকতার মূল আচরণ বিধি- এম আর দিপু

রবিবার, ১১ অক্টোবর ২০২০ | ৩:৫৩ অপরাহ্ণ

বস্তুনিষ্ঠ সংবাদই সাংবাদিকতার মূল আচরণ বিধি- এম আর দিপু

বস্তুনিষ্ঠ সংবাদই সাংবাদিকতার মূল আচরণ বিধি। আমাদের দেশে বিজ্ঞ মানুষরা সাংবাদিকতাকে সমাজের দর্পন এবং জাতির বিবেকবান পুরুষ বলে আখ্যায়িত করেন। সাংবাদিকতা হল এমন একটি পেশা জনগনের সাথে যা সর্বদাই সংপৃক্ত। এক কথা বলা যায় সাংবাদিক জনতার কাছে,সত্য ন্যায়নিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের জন্য দায়বদ্ধ। তাই তার নীতিমালার প্রথম শর্তই হল সঠিক তথ্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করা। কারণ তারা যেমন জনতার দরবারে সংবাদ পরিবেশনের দায়বদ্ধ তেমনি তাদের অন্যতম দায়িত্ব তারা হবেন জনগনের বন্ধু এবং তথ্য সরবরাহকারী। তাই কোন কিছুর স্বার্থে কোন কিছুর বিনিময়ে থেকে তাকে বিরত থাকতে হবে। বিশেষ করে উপড়ির বিনিময়ে ভ্রান্ত খবর পরিবেশন করবেন না কখনো। এখানে মার্কিন যুক্তরাষ্টের সাংবাদিকদের জন্য তৈরী নীতিমালার প্রথম অনুচ্ছেদটি স্মরণযোগ্য। আমি সাংবাকিতার পেশায় বিশ্বাস করি এবং বিশ্বাস করি জনগনেরই সম্পত্তি। এতে আরো বলা হয়েছে আমার মতে স্বচ্ছ ভাবনা,স্বচ্ছ,সঠিক ও অভ্রান্ত সংবাদ পরিবেশন ভালো সাংবাদিকতার উপাদান,একজন সাংবাদিক শুধু তাই লিখবেন, যা তিনি মনে প্রানে বিশ্বাস করেন। সমাজের মঙ্গলের স্বার্থ ছাড়া কোন সংবাদ চেপে যাওয়া অন্যায়।

ভদ্রলোক হিসাবে তিনি যা বলতে পারেন না তা কখনোই একজন সাংবাদিকের প্রতিবেদক হিসাবে লেখা উচিত নয়। কোন রাজনৈতিক দলের পক্ষ নিয়ে রঙ চাপিয়ে সংবাদ পরিবেশন যা পাঠকের বিভ্রান্ত করে তা সাংবাদিকতার নীতি বিরুদ্ধ কাজ। তাই শুধু প্রতিবেদন রচনার ক্ষেত্রেই নয় ব্যক্তি জীবনের একজন সাংবাদিককে হতে হবে সৎ,ন্যায়নিষ্ঠ ও নিয়মনিষ্ঠ। কোন ব্যক্তিগতসুত্র থেকে পাওয়া সংবাদের সত্য যাচাই না করে পরিবেশন করা উচিত নয়। কেননা সাংবাদিকতার মুল আদর্শ জনসেবা,কারো ক্ষতি করা নয়। মার্কিন সাংবাদিক ওয়ান্টার উইলিং এ প্রসঙ্গে বলেছেন,সংবাদ ও সম্পাদকীয় হবে  উন্নত মানের যা পাঠক ভালবাসে। অর্ধসত্য সংবাদ প্রকাশ করা উচিত নয়।

সুষ্ঠ,বলিষ্ঠ মন্তব্যের জন্য সাংবাদিকের অভিনন্দিত হওয়ার বাসনা ও ক্ষমতার লোভ যেন না পেয়ে বসে। তিনি যেন প্রলোভনের শিকার না হন। আবার তিনি যাই করুন তিনি কখনও বেপরোয়া হবেন না। তিনি সর্বদা নিজের সম্পর্কে সচেতন থাকবেন। আড্ডা সামাজিকতার ঝুলি থেকে বেড়িয়ে তাকে খবরের উৎস ঠিক করতে হবে। কোন অবস্থাতেই সামাজিকতা যেন সাংবাদিকের হাত পা বেধেঁ রাখতে বা মুখ বন্ধ করতেনা পারে।




সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন