নারায়ণগঞ্জের ডাক | logo

২রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৬ই জানুয়ারি, ২০২১ ইং

নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের নব নর্বাচিত কমিটির সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম (বার)।

প্রকাশিত : জানুয়ারি ১১, ২০২১, ১৯:৫৯

নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের নব নর্বাচিত কমিটির সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম (বার)।

নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের নব নর্বাচিত কমিটির সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম (বার)।সোমবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিহ হয়। সভার শুরুতে পুলিশ সুপার নব-নির্বাচিত কমিটিকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।পুলিশ সুপার জায়েদুল আলমের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ নব-নির্বাচিত প্রেসক্লাবের সভাপতি খন্দকার শাহআলম, সহসভাপতি রফিকুল ইসলাম জীবন, সাধারণ সম্পাদক শরীফুদ্দিন সবুজ, কোষাধ্যক্ষ মজিবুল হক পলাশ, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক আনিসুর রহমান জুয়েল, কার্যকরী পরিষদের সদস্য হালিম আজাদ, আরিফ আলম দীপু, মাহফুজুর রহমান, বিল্লাল হোসেন রবিন, লুৎফর রহমান কাকন। এছাড়া পুলিশ সুপারের আমন্ত্রনে উপস্থিত ছিলেন, প্রেসক্লাবের বিদায়ী সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম ও সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান শামীম।জেলা পুলিশের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোস্তাফিজুর রহমান, সদর মডেল থানার ওসি শাহজালাল, ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন, ডিবির ওসিসহ জেলা পুলিশর উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।মতবিনিময় সভায় প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা তাদের বক্তব্যে নগরীর যানজট, মাদক, ফুটপাতে হকার, পাড়া মহল্লায় বখাটেদের উৎপাত, চুরি-ডাকাতি-ছিনতাইসহ নানা বিষয় তুলে ধরেন। এছাড়া প্রেস লেখা গাড়ি ও মাদকসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত নামধারী সাংবাদিকদের বিষয়ে কঠোর হওয়ার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান। সাংবাদিক ও পুলিশ সুপারের এই মতবিনিময় সভা অত্যন্ত হৃদ্যতাপূর্ণ হয়।পুলিশ সুপার তার সমাপনী বক্তব্যে পরিস্কার ভাষায় বলেন, আমি আপনাদের সহযোগীতা চাই। আমি যখন মুন্সীগঞ্জে ছিলাম তখন সাংবাদিকদের পরামর্শে এবং তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে আমি আশি ভাগ অপরাধ দমন করেছি। আমি আপনারে কাছেও এই ধরনের সহযোগীতা চাই।এই সময় তিনি খুবই আন্তরিক ভাবে সম্পূর্ণ আইনের পথে থেকে আইনশৃংখলা নিয়ন্ত্রনের দৃঢ় প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন।

পুলিশ সুপার বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলায় অপরাধ অনেক কমে এসেছে। কমেছে মামলার সংখ্যাও। এ সময় সাংবাদিকরা তাকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেন। তিনি সঙ্গে সঙ্গে উপস্থিত পুলিশ অফিসারদের সমস্যাগুলি সমাধানের নির্দেশ দেন। নারায়ণগঞ্জে বড় অপরাধ কমলেও চুরির মতো ঘটনা বেড়েছে বলে তিনি স্বীকার করেন। মাদক নিয়ে সাংবাদিকরা অভিযোগ করলে এ ব্যাপারে ব্যাপক অভিযান চালানোর জন্য তিনি ডিবির ওসিকে নির্দেশ দেন। এছাড়া ছিচকে চোর ধরার জন্যও তিনি থানার ওসিদেরকে নির্দেশ দেন।তিনি আরও বলেন, শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও বিভিন্ন এলাকা সিসি টিভির আওতায় চলে আসবে খুব শীঘ্রই। এতে করে অপরাধ অনেকাংশে কমে যাবে। এছাড়া মৌমিতা বাসসহ যে সকল বাস চাষাঢ়া মোড়ে থামিয়ে যাত্রী তোলার নামে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে সেই সকল বাসের বিরুদ্ধে এক সপ্তাহের মধ্যে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ট্রাফিক পুলিশকে নির্দেশ দেন তিনি। হকার সমস্যা নিয়ে তিনি জিরো টলারেন্স নীতির কথা জানান। কোনো মতেই আর হকারদের বসতে দেয়া হবে না বলে তিনি পরিস্কার জানিয়ে দেন। জেলায় ডাকাতির ঘটনা বন্ধে তিনি আরো কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন।পরিশেষে তিনি নারায়ণগঞ্জের জনগুরুত্বপূর্ণ সমস্যাগুলো নিয়ে গোল টেবিল বৈঠকের আয়োজন করার জন্য প্রেসক্লাব কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান।




মোবাইলঃ 01317838887
ইমেইলঃ narayanganjerdak@gmail.com