সোমবার, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আজ সোমবার | ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আক্তার হোসেন মোল্লাকে, ৪নং ওয়ার্ড আসন্ন তারাবো পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর হিসাবে আবারও দেখতে চায় এলাকাবাসী

মঙ্গলবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২০ | ৪:২৫ অপরাহ্ণ

আক্তার হোসেন মোল্লাকে, ৪নং ওয়ার্ড আসন্ন তারাবো পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর হিসাবে আবারও দেখতে চায় এলাকাবাসী

মুশফিকুর রহমান: আক্তার হোসেন মোল্লা বলেন একটি সুন্দর সমাজ বিনির্মানে একজন শিক্ষিত মানুষের বিকল্প নেই। এরাই ধারাবাহিকতায় আসন্ন আগামী তারাবো পৌরসভা নির্বাচনের ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদপ্রার্থী মানবপ্রেমিক ব্যক্তি আক্তার হোসেন মোল্লা । একটি উন্নতশীল ও স্বনির্ভর বাংলাদেশ গড়তে হলে সবার আগে দরকার অপরাধ প্রবণতামুক্ত একটি সুন্দর সমাজ। কারন তৃনমুলের জনপদ ভালো থাকলে দেশ জনগনের ভাগ্য উন্নয়নের সহায়ক হিসেবে কাজ করে বিশ্বের উন্নতশীল দেশ সমুহের দিকে তাকালে বাস্তবচিত্ত এমনটাই পরীলক্ষিত হয়। সরকারি সফল উদ্যোগের কারনে বর্তমানে বাংলাদেশ এখন সর্বক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের প্রতিটি সেক্টরে সমৃদ্ধি যেমন বাড়ছে, তেমনি জনগনের জীবন যাত্রার মনোন্নয়ন হচ্ছে। তবে এখানে আমরা কিছু কিছু নেতিবাচক কাজের কারনে পিছিয়ে আছি। যার ফলে সামাজিক অস্থিরতা বৃদ্ধির পাশাপাশি জনমনে সৃষ্টি হচ্ছে অশান্তি। উন্নয়নসমৃদ্ধ একটি স্বর্নিভর বাংলাদেশ দেখতে চাইলে একটি সুন্দর সমাজ বির্নিমানের জন্য সবাইকে মাদক, সন্ত্রাশ, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, ভূমিদস্যু সহ অনৈতিক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে ভূমিকা পালন করতে হবে। প্রয়োজনে জনমত তৈরী করে সামাজিক আন্দোলন জোরদার করতে হবে। নেতিবাচক এসব কাজের ব্যাপারে বিশেষ করে কোমলমতি শিক্ষার্থী বর্তমান প্রজন্মকে সচেতন করে তুলতে হবে। আজকে এমন একজনের কথা আপনাদের সামনে তুলে না ধরে পারলাম তিনি আর কেউ নন, তিনি হচ্ছেন সাবেক কাউন্সিলর আক্তার হোসেন মোল্লা তারাবো পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর। আক্তার হোসেন মোল্লা এর সাথে আলাপকালে জানা যায়, প্রতিবারের মত এবারও তারাবো পৌরসভা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষলীগ, সেচ্ছাসেবকলীগ, শ্রমিকলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ, যুবমহিলা লীগ, সহ এলাকার গরীব দুঃখী মানুষের দোয়ায় এবার নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়লাভ করব ইন্ধসঢ়;শাল্লাহ। তিনি আরো সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠাতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করি। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু
শেখ মুজিবুর রহমান জন্ম না হলে আমরা বিজয় দিবস পেতাম না, তার জন্ম না হলে আমরা বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারতাম না। তাই আমি তারাবো পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ড এর এলাকাবাসী সবাইকে জানাই মুজিব বর্ষের শুভেচ্ছা ও বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা সরজমিনে গিয়ে দেখা গেল, আগামী নির্বাচন নিয়ে ইতিমধ্যেই ৪নং ওয়ার্ডে এলাকাবাসীর মধ্যে আলোচনা, পর্যালোচনা শুরু হয়ে গেছে। করোনা মহামারীতে তিনি এলাকার সর্বস্তরের মানুষের পাশে এসে দাড়িয়েছেন। যেমন- চাল-ডাল-তেল- আলু-সাবান-পেয়াজ-লবন নিত্যপ্রয়োজনীয় সকল উপাদান এবং নগদ অর্থ প্রদান করে এলাকার জনমানুষের পাশে থেকেছেন। তারাবো পৌরসভা একটি বৃহৎ এলাকা এবং ৪নং ওয়ার্ড অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এলাকা। এলাকার আয়তন যেমন বড় তেমনি বিভিন্ন রকম সমস্যাগুলো হচ্ছে নেই কোন ড্রেনেজ ব্যবস্থা, এলাকার বিভিন্ন মোড়ে নেই কোন লাইটিং এর ব্যবস্থা, নেই কোন সিসিটিভি ক্যামেরার ব্যবস্থা, রাস্তাঘাটের বেহাল অবস্থা, মাদক ইভটিজিং, ছিনতাই, চাঁদাবাজি সহ আরো অনেক, বর্তমান কাউন্সিলর এই সমস্যা গুলো আজও সমাধান করতে পারেননি। সামাজিক যোগযোগের মাধ্যমে জানা যায়, বর্তমান কাউন্সিলর নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘন করে গত শুক্রবার এলাকার জনগনের মাঝে কম্বল বিতরন করেন। অন্যান্য এলাকার মত এই এলাকাতেও আগামী নির্বাচন এবং আগামী দিনের কাউন্সিলর হতে যাচ্ছেন কে, এ নিয়ে আলোচনা চলছে সর্বত্র। তবে সবচেয়ে বেশি আলোচিত হচ্ছে আক্তার হোসেন মোল্লা এর নাম। তিনি একজন সহজ, সরল, নিরহংকারী হিসেবে পরিচিত। তিনি ধনী গরিব সবার সাথে সাদালাপী। তিনি এছাড়াও বিভিন্ন ধর্মীয় ও সামাজিক কাজকর্মে জড়িত। তার পরিবার এবং সমাজসেবায় অত্যন্ত সুপরিচিত ও সুপ্রতিষ্ঠিত বিধায় আগামী নির্বাচনে আক্তার হোসেন মোল্লা কে রূপগঞ্জ তারাবো পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড এলাকার জনপ্রিয় ব্যক্তি, এর নামই উচ্চারিত হচ্ছে সবচেয়ে বেশি। তিনি সাংবাদিকদের আরো বলেন, আমার বাবা মরহুম বাদশাহ মোল্লা ছিলেন গরীব দুঃখী মানুষের আদর্শের সৈনিক। তিনিও তার বাবার মতো এলাকার জনগনের সেবা করতে চান। বাবা এলাকার জনগনের ভালবাসা আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়নি। বাবা সবসময় চাইতেন এলাকার মানুষ যেন সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে উঠে। বাবার সূত্র ধরেই আমিও এলাকার অনেক সামাজিক
কর্মকান্ডের সাথে সম্পৃক্ত। তিনি বলেন মন্ত্রী মহোদয়ের সাথে সমন্বয় করে কি করে এলাকার উন্নয়ন ও অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পূর্ণ করার চেষ্টা করবো। মোহাম্মদ আক্তার হোসেন মোল্লা বলেন রাজনৈতিকভাবে অনেক নীরিহ নির্যাতিত এলাকার জনগনের সাথে সবসময় আছি এবং ভবিষ্যতে থাকবো। জাতির পিতার আদর্শকে ধারণ করে জনগনের সেবা করতে চাই আবারও। তিনি বলেন দূর্নীতির উর্দ্ধে থেকে ডিজিটাল বাংলাদেশের অভাবনীয় উন্নয়নে আমৃত্যু কাজ করতে চান। আক্তার হোসেন মোল্লা বলেন, এলাকার প্রতিটি রাস্তাঘাট উন্নয়ন, গ্যাস, পানি, বিদ্যুৎ, স্থায়ী জলাবদ্ধতা, মাদকমুক্ত সমাজ গঠন, জঙ্গীবাদ, চাঁদাবাজিমুক্ত, পরিকল্পিত আবাসন, শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ, পরিচ্ছন্ন আধুনিক এলাকা গঠনে অসামান্য ভূমিকা রাখবেন। ইনশাআল্লাহ।




সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন